মাশরাফির ব্রেসলেট মাশরাফিকেই উপহার দিয়েছেন! ৪২ লাখ টাকায় মাশরাফির ব্রেসলেট নিলামের মাধ্যমে কিনে নিলো আইপিডিসি ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান এর এক কর্মকর্তা ! যিনি নিয়েছেন তাঁর নাম মুমিনুল ইসলাম!

মাশরাফির ব্রেসলেট মাশরাফিকেই উপহার
মাশরাফির ব্রেসলেট মাশরাফিকেই উপহার

বড় চমক হলো ব্রেসলেট টি কিনে আবার মাশরাফিকেই উপহার দিয়েছেন, যখন ম্যাশ হাত থেকে খুলে কথা বলা শুরু করলো তখন সবারি কষ্ট লাগছিলো !

মাশরাফির মুখ থেকে কথায় আসছিলো না, আটকে যাচ্ছিলো, অনেক ইমোশনের একটা প্রিয় জিনিস এই ব্রেসলেট সামনে অনুষ্ঠান করেই মাশরাফির হাতে তুলে দিবেন এই ব্রেসলেট, যদিও এখন পর্যন্ত মাশরাফির কাছেই আছে !

ক্যারিয়ারের শুরু থেকে ম্যাশের উত্থান পতনের সাক্ষী তার সেই ব্রেসলেটটি, করোনার প্রাদুর্ভাবে এবার সেটিই নিলামে তুলেছিলেন মাশরাফির যার ভিত্তিমূল্য ছিল ৫ লক্ষ টাকা ! কিন্তু নিলাম শেষে সেই ব্রেসলেটটির মূল্য গিয়ে দাড়িয়েছিলো অবিশ্বাস্য হলেও ৪২ লক্ষ টাকা !

সত্যি বলতে কি আমি আপনি কল্পনাও করতে পারি নাই যে এই ব্রেসলেটটি মূল্য এত্তো হবে, যার সম্পূর্ন টাকা খরচ করা হবে অসহায় দুঃস্থ মানুষের সেবায়, সেই ব্রেসলেটটি এবং টি শার্টের উঁচু কলার ছাড়া ম্যাশকে কল্পনা করাও অসম্ভব মাশরাফিকে,

তবে নিলাম শেষে অবশ্য একটি সুখবরও দিয়েছেন “আইপিডিসি ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান এর এক কর্মকর্তা” এর পক্ষ থেকে নিলামে অংশগ্রহণ করা উক্ত কোম্পানির পরিচালক মমিনুল ইসলাম সেই ব্রেসলেটটি পুনরায় আবারো ম্যাশকে উপহার স্বরূপ দিবে তাদের সেই কোম্পানি টি, ভালোবাসা বিলিয়ে দিলে যে ভালোবাসা পাওয়া যায় এটি তারই একটি প্রমান, আবারো ধন্যবাদ তাদের কে এমন একটি সিদ্ধান্তের জন্য !

ব্রেসলেটটা মাশরাফির ১৮ বছরের সঙ্গী। মাশরাফি নামক পরশপাথরের ছোঁয়ায় যেটা হয়েছে সোনায় মোড়ানো, হয়েছে আইকনিক।
জীবনের অন্যান্য জিনিসের মতো এই ব্রেসলেটটাও যে ম্যাশের সবচেয়ে প্রিয় তা বলার অপেক্ষা রাখে না, এটা শুধু একটা ব্রেসলেট না এটা তার জীবনেরই অংশ।

কিন্তু দেশের মানুষের ভালবাসায় সেটা তুচ্ছ্য।সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশের মানুষের ভালবাসায় দেড় যুগের সঙ্গীকে নিলামে তুলে সেই অর্থ দিয়ে তাদের পাশে দাঁড়ানোর।
এর আগেও ম্যাশের উদার মানবিকতার পরিচয় বহুবার পেয়েছি।

মাশরাফির বীরত্ব তার ব্যান্ডেজ প্যাঁচানো হাঁটুতে না, মাশরাফির বীরত্ব তার কলিজায়!!
বাইরে থেকে সেটা দেখা যায় না।

আপনাকে যতই দেখি ততই অবাক হই, অবাক হই আপনার চওড়া কলিজার জন্য।

এজন্যই তো মাশরাফি নামক মাদকে বহু আগেই নিজেকে আসক্ত করে ফেলেছি, স্যালুট হে গুরু তুমি রবে এই অন্তরে

১৮ বছর = ৬ হাজার ৫৭০ দিনের সঙ্গী ! যেটা কিনা হাতেগোনা কয়েকদিন কয়েক মিনিটের জন্য হাতের বাহিরে ছিলো।

মূল কথা হলো: তুমি যোগ্য হলে তোমার সবকিছুর দাম অটোমেটিক বেড়ে যাবে তার বাস্তব প্রমাণ মাশরাফি বিন মুর্তজা এর একটি হাতের ব্রেসলেট।

তাই অন্যের পিছনে সময় ব্যয় না করে নিজেকে যোগ্য করে তুলার জন্য নিজের পিছনে সময়টা ব্যয় করুন।এতেই কল্যাণ নিহিত আছে।

ধন্যবাদ, মমিনুল ইসলাম: ম্যাশ ফ্যানদের পক্ষ থেকে আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।
যাদের কিনার মতো সাধ্য ছিলোনা তারাও ভাবছিলো যদি কিনে ম্যাশ কে গিফট করা যেতো।
আর আপনি সেই কাজটা করে দেখালেন।
সেলুট আপনাকে ভাই।

ধন্যবাদ ক্যাপ্টেন ফ্যান্টাস্টিক
১৬ কোটি মানুষের পক্ষ থেকে আপনার জন্য অসংখ্য ভালোবাসা, আপনি বেঁচে থাকেন হাজার বছর !

   আরও পড়ুন: মুশফিকুর রহিমের ব্যাট কিনলেন শহীদ আফ্রিদি।

“খেলা সংক্রান্ত সকল সাম্প্রতিক খবর জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here